আশুলিয়ায় চাঁদাবাজির অভিযোগে শেখ উজ্জল সহ আটক ২

বাংলার কলম বাংলার কলম

নিজস্ব ডেস্ক

প্রকাশিত: ৯:৪৪ অপরাহ্ণ, জুন ২৭, ২০২০ | আপডেট: ৯:৪৪ অপরাহ্ণ

মোঃ এনামুল হক, স্টাফ রিপোর্টারঃ

রাজধানী ঢাকার সাভার উপজেলার প্রধান শিল্পান্চল আশুলিয়ায় চাঁদাবাজির অভিযোগে এক সহযোগীসহ ঢাকা জেলা উত্তর সেচ্ছাসেবক লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শেখ উজ্জল কে আটক করেছে আশুলিয়া থানা পুলিশ।

শুক্রবার (২৬ জুন) রাত সাড়ে ১০ টার দিকে আশুলিয়ার ভাদাইলের তালতলা এলাকার শেখ উজ্জলের ব্যক্তিগত অফিস থেকে সহযোগী আলমগীরসহ তাকে আটক করেছে আশুলিয়া থানা পুলিশের একটি অভিযানিক দল।

এঘটনায় অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে আশুলিয়া থানায় চাঁদাবাজির মামলা দায়ের করেছেন ভুক্তভোগী আকবর আলী নামে এক ময়লা ব্যবসায়ী।

চাদাঁবাজির অভিযোগে আটক শেখ উজ্জ্বল গোপালগঞ্জ জেলার কাশিয়ানী থানার মোকছেদপুর এলাকার আবুল কালাম আজাদের পুত্র বলে জানা যায়।

সহযোগী আলমগীর কবির ধামসোনা ইউপি ওয়ার্ড যুবলীগের সভাপতি বলে জানা যায়।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, ভুক্তবোগি ময়লা ব্যবসায়ী আকবর আলীর কাছে বিগত কয়েক মাস ধরে মাসে ২০ হাজার টাকা চাঁদা দাবি করে আসছিল ভাদাইল এলাকার বাসিন্দা চাঁদাবাজ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা শেখ উজ্জ্বল।

উক্ত ব্যাবসায়ি চাঁদা দিতে অস্বীকার করলে অত্র এলাকায় ময়লার গাড়ি ঢুকতে বাঁধা দেন ও আকবর আলীকে মারধর করেন উজ্জ্বল ও তার ক্যাডার বাহিনী।

পরে ভুক্তভোগী ময়লা ব্যবসায়ী আকবর আলি আশুলিয়া থানায় শেখ উজ্জলকে প্রধান আসামী করে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

অত্র এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, শেখ উজ্জ্বল ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের শীর্ষ পর্যায়ের বিভিন্ন নেতৃবৃন্দের নাম ভাঙ্গিয়ে দীর্ঘদিন ধরে ভাদাইলসহ বিভিন্ন এলাকায় চাঁদাবাজি করে আসছিল,এমনকি অনেক লোকের বাড়ি ঘর জোর করে লিখে নেয়া দখল সহ ভুক্তভোগীদের অত্র এলাকা ছাড়া করার ও একাধিক অভিযোগ উঠেছে।

শেখ উজ্জলের হাত থেকে রক্ষা পায় নি রিকশাচালক, ময়লা নিষ্কাশন কর্মীসহ ফুটপাতের দোকানদাররা পর্যন্ত।

এমনকি ওই এলাকায় বাড়ি নির্মান করতে হলেও শেখ উজ্জল ও তার ক্যাডার বাহিনী কে নির্ধারিত হারে চাঁদা পরিশোধ করে বাড়ি নির্মান করতে হতো অন্যথায় তাদের উপর নেমে আসতো শেখ উজ্জল ও তার ক্যাডার বাহিনীর নির্যাতনের ভয়ংকর খরগ।

এ চাঁদাবাজির ঘটনায় ঢাকা জেলা উত্তর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক সায়েম মোল্লা বলেন, ব্যক্তিগত অপরাধজনিত কর্মকান্ডের দায়ভার সংগঠন কখনই নেবে না।

সংগঠন বিরোধী কিংবা অপরাধজনীত কর্মকান্ডের সাথে জড়িত থাকলে তার বিরুদ্ধে অবশ্যই সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এ বিষয়ে আশুলিয়া থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) জাবেদ মাসুদ জানান, ময়লা ব্যবাসায়ীকে মারধর ও চাঁদাবাজির অভিযোগে আটক দুই জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

বাকীদের গ্রেপ্তার করতে অভিযান অব্যাহত রয়েছে বলে জানান তিনি।