অতিরিক্ত ঠান্ডা পানি পানে যে ৫টি ক্ষতি হতে পারে!

মোঃ শাহিন মোঃ শাহিন

বার্তা সম্পাদক

প্রকাশিত: ৭:৫৪ অপরাহ্ণ, জুলাই ৪, ২০১৯ | আপডেট: ৭:৫৪ অপরাহ্ণ

সারাদিন রোজা রেখে ইফতারের শুরু অতিরিক্ত ঠান্ডা পানি দিয়ে করবেন না। প্রয়োজনে ইফতারের ২০ মিনিট আগে ঠান্ডা পানি ফ্রিজ থেকে বের করে সাধারণ তাপমাত্রায় রাখুন, এরপর গ্রহণ করুন। কারণ অতিরিক্ত ঠান্ডা পানি আপনার বিপদ ডেকে আনতে পারে। আসুন জেনে নেই অতিরিক্ত ঠান্ডা পানি পানে কী কী সমস্যা হতে পারে –

সংক্রমণের ঝুঁকি বাড়ায়- বিশেষজ্ঞদের মতে খাবার গ্রহণের পর ঠান্ডা পানি পান করার অভ্যাস দেহের জন্য অস্বাস্থ্যকর। কারণ এর ফলে শ্বাসনালীতে অতিরিক্ত পরিমাণে শ্লোষ্মার আস্তরণ তৈরি হয়, যা থেকে বেড়ে যায় সংক্রমণের ঝুঁকি।

হজমে সমস্যা-মাত্রাতিরিক্ত ঠান্ডা পানি খাওয়ার ফলে রক্তনালী হয়ে পড়ে সঙ্কুচিত। কেবল তাই নয়, অতিরিক্ত ঠান্ডা পানি গ্রহণের ফলে আমাদের দেহের স্বাভাবিক পরিপাক ক্রিয়া বাধাপ্রাপ্ত হয়। যার ফলে হজমে মারাত্মক সমস্যা হতে পারে।

ঠান্ডা পানি- শরীরচর্চার পর ঠান্ডা পানি পান করা থেকে বিরত থাকুন

দেহের তাপমাত্রা অসামঞ্জস্যতা- কখনো শরীরচর্চার পর ঠান্ডা পানি খাবেন না। কারণ, ওয়ার্ক আউটের পর দেহের তাপমাত্রা অনেকখানি বেড়ে যায়। এসময় ঠান্ডা পানি খেলে শরীরের তাপমাত্রার সঙ্গে বাইরের পরিবেশের তাপমাত্রার সামঞ্জস্য বিঘ্নিত হয়। যার ফলে হজমে নানা সমস্যা দেখা দিতে পারে।

দাঁতের সমস্যা- দন্ত চিকিৎসক ও বিশেষজ্ঞদের মতে, অতিরিক্ত ঠান্ডা পানি খেলে দাঁতের ভেগাস স্নায়ুর ওপর মারাত্মক ক্ষতিকর প্রভাব পড়ে। এই ভেগাস স্নায়ু আমাদের স্নায়ুতন্ত্রের অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি অংশ। অতিরিক্ত ঠান্ডা পানি গ্রহণ করলে এই ভেগাস স্নায়ু উদ্দীপিত হয়ে ওঠে। যার ফলে আমাদের হৃদযন্ত্রের গতি অনেকটাই কমে যেতে পারে।



১ reply on “অতিরিক্ত ঠান্ডা পানি পানে যে ৫টি ক্ষতি হতে পারে!”